রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবিপ্রবি) প্রথম রিজেন্ট বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত

রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবিপ্রবি) সর্বোচ্চ নীতি-নির্ধারণী পর্ষদ রিজেন্ট বোর্ড এর প্রথম সভা আজ বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১:০০ ঘটিকায় রাঙ্গামাটি শহরের পর্যটন মোটেল সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রাবিপ্রবি রিজেন্ট বোর্ডের প্রথম সভায় রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর এবং রিজেন্ট বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. প্রদানেন্দু বিকাশ চাকমা সভাপতিত্ব করেন।

সভার শুরুতে ভাইস-চ্যান্সেলর মহান স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধে আত্মদানকারী বীর শহীদদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন। রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর পদে দ্বিতীয় মেয়াদে নিয়োগ দেওয়ায় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ মহোদয়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

“রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্নের একাংশ। তাঁর ঐকান্তিক প্রচেষ্টা, সদিচ্ছা ও এখানকার জনগণের প্রতি অকৃত্রিম ভালোবাসা না থাকলে এই বিশ্ববিদ্যালয় আলোর মুখ দেখতো না।” সভায় বক্তব্যে ভাইস চ্যান্সেলর একথা বলেন ।

সবসময় দিক নির্দেশনা ও সুপরামর্শ দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক কার্যক্রম পরিচালনায় শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সহযোগিতার ধারা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে, এ প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন ভাইস-চ্যান্সেলর।

তিনি আরো বলেন, “আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর শিক্ষার প্রসার, সম্প্রীতি নিশ্চিতকরণ এবং প্রগতি সাধন- এই রুপকল্প বা ভিশন নিয়ে রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু হয়। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে যুগোপযোগী কারিকুলাম প্রণয়ন করে আধুনিক প্রযুক্তিগত বিজ্ঞান শিক্ষা ও গবেষণার গুণগত মান নিশ্চিত করা এবং বিশ্বমানে উন্নীত করার অব্যাহত পদক্ষেপ গ্রহণ করতে আমরা বদ্ধ পরিকর।”

রিজেন্ট বোর্ডের সচিব বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) জনাব অঞ্জন কুমার চাকমার সঞ্চালনায় রিজেন্ট বোর্ডের কার্যক্রম শুরু হয়। সভায় আলোচনাক্রমে বিভিন্ন নীতি নির্ধারণী বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রস্তাবিত লোগোসহ শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীদের চাকুরী সংক্রান্ত নিয়োগ , স্থায়ীকরণ, পর্যায়োন্নয়নসহ বিবিধ নীতিমালা অনুমোদন প্রদান করা হয়। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনে বিধৃত বিভিন্ন কমিটিতে সদস্য মনোনয়নের বিষয়ে ভাইস-চ্যান্সেলরকে দায়িত্ব প্রদানসহ শিক্ষক/ কর্মচারীদের বেতন সমন্বয়ের প্রস্তাব অনুমোদন প্রদান করা হয়।

রিজেন্ট বোর্ডের সভায় সম্মানিত সদস্য রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার সংসদ সদস্য জনাব দীপংকর তালুকদার, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার সংসদ সদস্য জনাব কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ, চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম, বিজিসি ট্রাস্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এ. এফ. এম. আওরঙ্গজেব, চট্টগ্রাম মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বোর্ড এর চেয়ারম্যান প্রফেসর প্রদীপ চক্রবর্তী, রাবিপ্রবি কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জনাব জুয়েল সিকদার, রাবিপ্রবি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সপ্তর্ষি চাকমা, রাবিপ্রবি ফরেস্ট্রি এন্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. সুপ্রিয় চাকমা,রাঙ্গামাটি সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর তুষার কান্তি বড়ুয়া এবং রাঙ্গামাটি সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোহাম্মদ এনামুল হক খোন্দকার উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও অনলাইন প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে উপস্থিত ছিলেন রাবিপ্রবি রিজেন্ট বোর্ডের সদস্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (মাধ্যমিক-২) জনাব ফৌজিয়া জাফরীন এনডিসি এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের যুগ্মসচিব (সরকারি কলেজ-৩) জনাব মূকেশ চন্দ্র বিশ্বাস।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ও একাডেমিক কার্যক্রমকে গতিশীল করার লক্ষ্যে নীতিনির্ধারণী সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে আগামীতে রিজেন্ট বোর্ডের সদস্যবৃন্দের সর্বাত্মক সহযোগিতা পাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করে এবং সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে রিজেন্ট বোর্ডের সভার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।